সর্বশেষ

বিমানবন্দরের কর্মীরাই যাত্রীর ব্যাগ থেকে চুরি করেছেন ডলার

যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামি বিমানবন্দরে যাত্রীদের ব্যাগ থেকে ডলার ও অন্যান্য জিনিসপত্র চুরি করেছেন খোদ বিমানবন্দরের পরিবহন নিরাপত্তা প্রশাসনের কর্মীরা। এই দৃশ্য ধরা পড়ে সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে। এখন এই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল।

নিউইয়র্ক পোস্টের খবরে বলা হয়, চলতি বছরের ২৯ জুন বিমানবন্দরের দুই পরিবহন নিরাপত্তাকর্মী যাত্রীদের ব্যাগ থেকে অন্তত নগদ ৬০০ ডলার ও অন্যান্য জিনিসপত্র চুরি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত দুজন হলেন ২০ বছর বয়সী জসু গনজালেজ ও ৩৩ বছরের লাবারিয়াস উইলিয়ামস। জুলাইয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। বিমানবন্দরের চেকপয়েন্টে ব্যাগ থেকে জিনিস চুরির অভিযোগ তদন্ত করতে গিয়ে বিষয়টি ধরা পড়ে।

প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, চেকপয়েন্টে এক্স–রে মেশিন দিয়ে যাত্রীদের ওয়ালেট বা পার্স পাঠানোর সময় দায়িত্বরত কর্মীরা সেগুলো থেকে নগদ অর্থ সরিয়ে রাখছেন। এতে দেখা যায়, এক কর্মকর্তা একটি ওয়ালেটে হাত দিয়ে সেখান থেকে ডলার সরিয়ে দ্রুত নিজের পকেটে চালান করছেন।

ফক্স নিউজের মতে, এই দুজনের সঙ্গে এলিজাবেথ ফাস্টার নামের আরও একজনকে গত জুলাইয়ে গ্রেপ্তার করা হয়। মিয়ামি-ডেড কাউন্টি জেলের রেকর্ড অনুসারে, প্রাথমিকভাবে তাঁদের বিরুদ্ধে সুসংগঠিত প্রতারণার অভিযোগ আনা হয়।

ফাস্টার ও গনজালেজ স্বীকার করেছেন, তাঁরা যাত্রীদের ব্যাগ থেকে অসংখ্য চুরি করেছেন। দুজন একসঙ্গে কাজ করার সময় প্রতিদিন গড়ে এক হাজারের মতো ডলার চুরি করেছেন।

পরিবহন নিরাপত্তা প্রশাসনের (টিএসএ) তথ্যমতে, তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত এবং প্রশাসনিক পদক্ষেপ না নেওয়া পর্যন্ত স্ক্রিনিং দায়িত্ব থেকে ওই কর্মকর্তাদের অপসারণ করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে টিএসএ জানিয়েছে, পরিবহন নিরাপত্তা প্রশাসন তাঁর কর্মকর্তাদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ পেশাগত ও নৈতিক মানদণ্ড বজায় রাখে। কর্মক্ষেত্রে কোনো ধরনের অসদাচরণ মেনে নেওয়া হবে না।

Related posts

জন্মকথন গোলাপি হীরার

Rubaiya Tasnim

চতুর্থ পর্বঃ ইমাম মাহাদী ও তার আগমন পূর্ব আলামত সমূহ

Asma Akter

এখন ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক সৈয়দপুর বিমানবন্দরে

Rubaiya Tasnim

Leave a Comment