ইসলাম ধর্ম

দ্বিতীয় দিনের তারাবিহ নামাজে আলোচিত বিধিবিধান

pickynews24

আজ (১২ মার্চ) প্রথম রমজান দিবাগত রাতে ইশার পর দ্বিতীয় দিনের তারাবিহ নামাজে আমাদের দেশের মসজিদগুলোতে কোরআনের দ্বিতীয় পারার অর্ধেক ও পূর্ণ তৃতীয় পারা তিলাওয়াত করা হবে। সুরা বাকারার ২০৪ নং আয়াত থেকে শুরু হয়ে তিলাওয়াত হবে সুরা আল-ইমরানের শুরু থেকে ৯১ নং আয়াত পর্যন্ত।

পবিত্র কোরআনের এ অংশে দৈনন্দিন জীবন সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ যে বিধিবিধান আলোচিত হয়েছে:

১. নারীদের মাসিকের সময় যৌনমিলন থেকে বিরত থাকতে হবে।

২. যারা চার মাস বা তার বেশি সময় স্ত্রী সংশ্রব থেকে বিরত থাকার শপথ করবে, তারা যদি তাদের শপথ না ভাঙে এবং চার মাস স্ত্রী থেকে দূরে থাকে, তাহলে তাদের বিয়ে ভেঙে যাবে। তবে চার মাস অতিক্রান্ত হওয়ার আগেই শপথ ভেঙে ফেললে বিয়ের সম্পর্ক ঠিক থাকবে এবং ওই কসমের জন্য কাফফারা দিতে হবে।

৩. স্ত্রীর ওপর স্বামীর অধিকার আছে, স্বামীর ওপরও স্ত্রীর অধিকার আছে। প্রত্যেকেরই দায়িত্ব অপরের প্রতি নিজের কর্তব্যের ব্যাপারে সচেতন হওয়া।

৪. নারীদের তালাকের ইদ্দত তিন মাসিক বা তিন মাস। স্বামী রাজঈ তালাক দেওয়ার পর তিন মাসিক পর্যন্ত সময়ের মধ্যে যদি ফিরিয়ে না নেয়, তাহলে তালাক চূড়ান্ত হয়ে যায় এবং নারীরা অন্য কাউকে বিয়ে করতে পারে।

৮. শিশুর দুধ পানের সময়কাল তার বয়স দুবছর হওয়া পর্যন্ত। এ সময়ের মধ্যে জন্মদাত্রী মা বা দুধ মা শিশুকে দুধ পান করাবে।

৯. বিধবা নারীদের ইদ্দতের সময়কাল ৪ মাস ১০দিন।

১০. নামাজ ইসলামের গুরুত্বপূর্ণ বিধান। নামাজের ব্যাপারে যত্নবান হওয়া, যথাযথভাবে নামাজ আদায় করা প্রত্যেক মুসলমানের কর্তব্য।

১১. ইসলামে ইসলাম গ্রহণে কাউকে জোর-জবরদস্তি করার নিয়ম নেই। আল্লাহ সত্য ও মিথ্যা স্পষ্টভাবে মানুষের সামনে তুলে ধরেছেন। যার ইচ্ছা হেদায়াতের পথ গ্রহণ করতে পারে, যার ইচ্ছা ভ্রান্তির পথ গ্রহণ করতে পারে।

১২. দান-সদকা করে খোটা দেওয়া গর্হিত স্বভাব। দান করে খোটা দেওয়ার চেয়ে সুন্দর কথা বলে মানুষকে বিদায় দেওয়া ভালো।

১৩. আল্লাহ ব্যবসা হালাল করেছেন, সুদ হারাম করেছেন। সুদ মিশ্রিত সম্পদ আল্লাহ ধ্বংস করেন, এবং দানের সম্পদ বৃদ্ধি করেন। কেউ সুদি কারবারে জড়িত থাকলে তার কর্তব্য হলো অবিলম্বে ওই লেনদেন থেকে সরে আসা, সুদের বকেয়া মাফ করে দেওয়া।

১৪. অর্থনৈতিক লেনদেন লিখে রাখতে হবে; যেন পরবর্তীতে এ বিষয়গুলো নিয়ে পারস্পরিক ভুল বোঝাবুঝি, দ্বন্দ্ব বা মনোমালিন্য তৈরি না হয়।

১৫. আল্লাহর ভালোবাসা পেতে আমাদের কর্তব্য আল্লাহর রাসুলকে অনুসরণ করা। আল্লাহর রাসুলের অনুসরণের মাধ্যমেই আল্লাহর সন্তুষ্টি ও ভালোবাসা লাভ করা যায়।

Related posts

যদি কল্যাণকর হয়, শপথ ভেঙে ফেলা মুস্তাহাব

Asma Akter

অসুস্থতার কারণে রোগীর নামাজের ফিদিয়া দিতে হবে কি?

Asma Akter

মসজিদের ফল খাওয়ার বিধান

Asma Akter

Leave a Comment