ইসলাম ধর্ম

ডেন্টাল ব্রেস ব্যবহার করার বিধান

Pickynews24

ডেন্টাল ব্রেস এমন একটি ডিভাইস যা দাঁতের পাটি ওপরে নিচে সামঞ্জস্যপূর্ণ করতে ব্যবহৃত হয়। দাঁতের পাটি অসামঞ্জস্যপূর্ণ হওয়ায় কিছু কামড়ে ধরতে যাদের সমস্যা হয়, তাদের চিকিৎসার জন্যই মূলত ডেন্টাল ব্রেস ব্যবহৃত হয়। এ ছাড়া দাঁত উঁচু বা আঁকাবাঁকা থাকলে তা ঠিক করতেও ডেন্টাল ব্রেস ব্যবহার করা হয়।

দাঁতে ত্রুটি থাকলে অর্থাৎ দাঁতের পাটি অসামঞ্জস্যপূর্ণ হলে বা দাঁত খারাপ দেখায় এ রকম উঁচু, ফাঁকা বা আঁকাবাঁকা হলে ত্রুটি দূর করার জন্য অভিজ্ঞ চিকিৎকের পরামর্শ অনুযায়ী ডেন্টাল ব্রেস ব্যবহার করা যেতে পারে। এটা আল্লাহর সৃষ্টিতে বিকৃতি গণ্য হবে না।

দাঁত যদি স্বাভাবিক হয়, তাহলে দাঁতের স্বাভাবিক সৌন্দর্য নষ্ট করে অধিকতর সৌন্দর্যের জন্য দাঁত সরু করা বা দাঁতের মধ্যে ফাঁক সৃষ্টি করা ইত্যাদি বৈধ নয়। রাসুল সা. ভ্রু উপড়ে ফেলা, দাঁতের মাঝে ফাঁক সৃষ্টি করা ইত্যাদি রূপচর্চাকে আল্লাহর সৃষ্টির মধ্যে বিকৃতি গণ্য করে এগুলো যারা করে তাদের অভিশপ্ত বলেছেন। রাসুল সা. বলেন,

لَعَنَ اللَّهُ الْوَاشِمَاتِ وَالْمُوتَشِمَاتِ وَالْمُتَنَمِّصَاتِ وَالْمُتَفَلِّجَاتِ لِلْحُسْنِ الْمُغَيِّرَاتِ خَلْقَ اللَّ
আল্লাহ ওই সব নারীকে লানত করেছেন, যারা উল্কি অঙ্কন করে বা করায়, যারা সৌন্দর্যের জন্য ভ্রূ উপড়ে ফেলে ও দাঁতের মাঝে ফাঁক সৃষ্টি করে; এরা আল্লাহর সৃষ্টিতে বিকৃতি ঘটিয়েছে। (সহিহ বুখারি: ৪৮৮৬)

কিন্তু শরীরে কোনো ত্রুটি সৃষ্টি হলে সেটা ঠিক করা বৈধ। রাসুলের (সা.) যুগে এক ব্যক্তির নাক কেটে গেলে তিনি রুপার ও রাসুলের (সা.) নির্দেশে পরবর্তীতে স্বর্ণের নাক বানিয়ে নিয়েছিলেন। আরফাজা ইবনে আসআদ (রা.) বলেন, জাহেলি যুগের কুলাব যুদ্ধের সময় আমার নাকে আঘাত লাগে। তখন আমি একটি রূপার নাক বাঁধিয়ে নেই। কিন্তু তা দুর্গন্ধময় হয়ে পড়লে রাসুল (সা.) একটি স্বর্ণের নাক বানিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন। (সুনানে তিরমিজি: ১৭৭৬)

কারণ এ ক্ষেত্রে স্বর্ণ ও রুপার নাক ব্যবহারের উদ্দেশ্য ছিলো ত্রুটি দূর করা, নিছক সৌন্দর্য বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে আল্লাহর সৃষ্টিকে বিকৃত করা নয়।

Related posts

আল্লাহ তায়ালার নির্দেশ তোমরা একে-অপরকে মন্দ নামে ডেকো না

Asma Akter

বিতর নামাযে দোয়া কুনুত মুখস্ত না থাকলে যে দোয়া পড়বেন

Asma Akter

সিগারেট খেলে কি নামাজ হবে?

Asma Akter

Leave a Comment