ইসলাম ধর্ম

নেক আমলের সওয়াব বহুগুণ,গুনাহের শাস্তি সমপরিমাণ

হাদিসে কুদসিতে বর্ণিত রয়েছে আল্লাহ তাআলা বলেন,

إنَّ اللَّهَ كَتَبَ الْحَسَنَاتِ وَالسَّيِّئَاتِ، ثُمَّ بَيَّنَ ذَلِكَ، فَمَنْ هَمَّ بِحَسَنَةٍ فَلَمْ يَعْمَلْهَا كَتَبَهَا اللَّهُ عِنْدَهُ حَسَنَةً كَامِلَةً، وَإِنْ هَمَّ بِهَا فَعَمِلَهَا كَتَبَهَا اللَّهُ عِنْدَهُ عَشْرَ حَسَنَاتٍ إلَى سَبْعِمِائَةِ ضِعْفٍ إلَى أَضْعَافٍ كَثِيرَةٍ، وَإِنْ هَمَّ بِسَيِّئَةٍ فَلَمْ يَعْمَلْهَا كَتَبَهَا اللَّهُ عِنْدَهُ حَسَنَةً كَامِلَةً، وَإِنْ هَمَّ بِهَا فَعَمِلَهَا كَتَبَهَا اللَّهُ سَيِّئَةً وَاحِدَةً

আল্লাহ ভালো ও মন্দ কাজ লিখে রাখেন। তারপর তিনি ব্যাখ্যা করেন, যে ব্যক্তি ভালেঅ কাজের জন্য দৃঢ় সংকল্প করে কিন্তু তা সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হয়, আল্লাহ তার আমলনামায় একটি পূর্ণ নেকি লিখেন আর যদি সে তা সম্পন্ন করে তবে আল্লাহ তার আমলনামায় দশ নেকি থেকে সাতশত পর্যন্ত; বরং তার চেয়েও বেশি নেকি লিখেন। যদি কারও মনে মন্দ কাজের বাসনা জাগে কিন্তু তা সে কাজে পরিণত না করে, আল্লাহ তার জন্য একটি পূর্ণ নেকি লিখেন। যদি সে তার বাসনা কাজে পরিণত করে, তবে তার জন্য একটি মন্দ কাজ লিখেন। (বুখারি: ৬৪৯১, মুসলিম: ১৩১)

এই হাদিস থেকে যে শিক্ষাগুলো আমরা পাই

১. এই হাদিস অনুযায়ী মুমিনের ভালো বা মন্দ কাজ করা না করা চার রকম হতে পারে। এক. মুমিন যদি কোনো ভালো কাজ করার নিয়ত করে পরে তা না করতে পারে, তাহলে আল্লাহ তার নিয়তের কারণে তার জন্য একটি পূর্ণ নেকি লিখেন। দুই. মুমিন যদি কোনো নেক কাজের নিয়ত করে এবং নেক কাজটি সম্পন্নও করে, তাহলে আল্লাহ তাকে দশ থেকে সাতশত বা আরও বেশি নেকি দান করেন। তিন. মুমিন ব্যক্তি কোনো খারাপ কাজের ইচ্ছা করেও পরে আল্লাহর ভয়ে তা না করলে আল্লাহ ওই খারাপ কাজটি না করার কারণে তাকে একটি পূর্ণ নেকি দান করেন। চার. মুমিন ব্যক্তি কোনো খারাপ কাজ করে ফেললে তার আমলনামায় একটি খারাপ কাজের গুনাহ লেখা হয়, বাড়িয়ে লেখা হয় না।

২. কোনো উত্তম কাজ করার প্রথম ধাপ হলো ওই কাজটি করার নিয়ত করা। উত্তম কাজের নিয়তের জন্যও আল্লাহ সওয়াব দান করবেন। কোনো উত্তম কাজের নিয়ত করলে অপরিসীম সওয়াব লাভের আশায় তা সম্পন্ন করার চেষ্টা করা উচিত। কোনো খারাপ কাজের প্রথম ধাপ ওই খারাপ কাজটি করার ইচ্ছা অন্তরে জেগে ওঠা, ওই ইচ্ছা দমন করা মুমিনের ওপর ওয়াজিব। মুমিন যদি ওই ইচ্ছা দমন করে খারাপ কাজটি থেকে বিরত থাকে, তাহলে আল্লাহ খারাপ কাজটি না করার কারণে তাকে একটি পূর্ণ নেকি দান করবেন।

৩. এই হাদিসটি থেকে বোঝা যায় বান্দাদের ওপর আল্লাহর অনুগ্রহ ও ইহসান কত বেশি। তিনি তাদের নেক কাজের সওয়াব বহুগুণ বাড়িয়ে লিখেন। কিন্তু মন্দ কাজ যতটুকু করে ততটুকুই লিখেন। আল্লাহ বলেন,

اِنَّ اللّٰهَ لَا یَظۡلِمُ مِثۡقَالَ ذَرَّۃٍ ۚ وَ اِنۡ تَکُ حَسَنَۃً یُّضٰعِفۡهَا وَ یُؤۡتِ مِنۡ لَّدُنۡهُ اَجۡرًا عَظِیۡمًا
নিশ্চয় আল্লাহ অণু পরিমাণও জুলুম করেন না। আর যদি সেটি ভাল কাজ হয়, তিনি তাকে দ্বিগুণ করে দেন এবং তাঁর পক্ষ থেকে বিপুল প্রতিদান প্রদান করেন। (সুরা নিসা: ৪০)

কোনো মুমিন ব্যক্তি গুনাহর কাজের নিয়ত করে পরে সেটা থেকে বিরত থাকলে তার জন্যও আল্লাহ একটি নেকি লিখেন। কী অসীম দয়া তার!

Related posts

যদি কেউ কোরআন খতমের মানত করে তা অন্যদের দিয়ে পড়ালে পূরণ হবে কি?

Asma Akter

নামাজের সময়সূচি: ১৫ মে ২০২৪

Asma Akter

(সূরা বাকারাহ : ২৮-২৯) মর্ম ও শিক্ষা

Asma Akter

Leave a Comment