সারাদেশ

খুনের ঘটনায় কেয়ারটেকারের যাবজ্জীবন

চট্টগ্রামে ভবনমালিককে খুনের ঘটনায় কেয়ারটেকারের যাবজ্জীবন

খুনের ঘটনায় কেয়ারটেকারের যাবজ্জীবন

খুনের ঘটনায় কেয়ারটেকারের যাবজ্জীবন মামলায় আরও বলা হয়, ২৬ সেপ্টেম্বর ভোরে নিজ বাড়ি ফটিকছড়ি

থেকে নিজাম পাশা শহরে আসেন নির্মাণাধীন ভবনের কাজ দেখতে। কিন্তু রাত ১০টা ৩৯ মিনিটে দারোয়ান হাসান ভবন মালিকের মোবাইল থেকে নিজামের মেয়েকে ফোন করে জানায় তার বাবা ভবনে আসেননি।

লোক দিয়ে নির্মাণ সামগ্রী পাঠিয়েছেন।

কিন্তু মোবাইল ফোন তার কাছে কেন- সে প্রশ্ন করায় উত্তরে হাসান জানায়, সেটিও লোক মারফত তার কাছে পাঠিয়েছে। এ সময় হাসান তাকে ২০ হাজার টাকা পাঠাতে বলে।

হাছানের অসংলগ্ন কথাবার্তায় সন্দেহ জাগে নিহত নিজামের মেয়ের। এরপর তার স্ত্রী ও স্বজনরা রাতেই ফটিকছড়ি থেকে চট্টগ্রামে রওনা করে রাত ২টার দিকে নির্মাণাধীন ভবনে পৌঁছান। বিভিন্ন দিকে খোঁজাখুঁজির পর নিজামকে না পেয়ে রাত সাড়ে ৩টার দিকে তারা দ্বারস্থ হয় পুলিশের। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে আশেপাশে খোঁজাখুঁজির পর নিজামের নির্মাণাধীন ভবন সংলগ্ন একটি স্থানে আবর্জনার স্তুপের ভেতর থেকে নিজাম পাশার হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করে।

২০ হাজার টাকার জন্য ভবনের মালিককে শ্বাসরোধে হত্যার ঘটনায় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চতুর্থ অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভুঞা এই রায় দেন।

মোহাম্মদ হাসানকে যাবজ্জীবন

আদালত আসামি মোহাম্মদ হাসানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

পৃথক আরেকটি ধারায় মোহাম্মদ হাসানকেকে একই সঙ্গে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড, পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০২১ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম নগরের পশ্চিম খুলশী জালালাবাদ আবাসিক

এলাকার জমির হাউজিং সোসাইটিতে নির্মাণাধীন একটি ভবন থেকে ওই ভবনের মালিক নিজাম পাশার (৬৫) হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

তাঁর বাড়ি চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ধুরং ইউনিয়নে।

এ ঘটনায় নিহত মানুষের স্ত্রী সেলিনা ইয়াসমিন বাদী হয়ে কেয়ারটেকার হাসানকে আসামি করে মামলা করেন।

পুলিশ ঘটনার পরদিন হাসানকে গ্রেপ্তার করে। মাত্র ২০ হাজার টাকার জন্য ভবনমালিককে খুন করার কথা স্বীকার করেন হাসান।

তদন্ত শেষে পরের বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারি পুলিশ আদালতে মামলার অভিযোগপত্র জমা দেয়।

২০২২ সালের ১৯ জুলাই এই মামলায় আসামি হাসানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করেন আদালত। ১৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আদালত আজ রায় দিলেন।

আজ রায় ঘোষণার সময় আসামি মোহাম্মদ হাসান আদালতে হাজির ছিলেন।

পরে তাঁকে আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Related posts

শীত আরও বাড়ল ঢাকায়!

Megh Bristy

যুক্তরাষ্ট্রে বিল পাস ইসরায়েল ও ইউক্রেনকে সহায়তা দিতে

Megh Bristy

২৩টি মাদরাসা ও দুস্থদের মধ্যে ১২০০ কেজি জাটকা ইলিশ বিতরণ

Megh Bristy

Leave a Comment