ইসলাম ধর্ম

বিয়ের মোহর পরিশোধ করা স্বামীর ওপর ফরজ

pickynews24

কারো বিয়ের মোহর যদি বাকি থাকে, মোহর পরিশোধের আগেই স্ত্রীর মৃত্যু হয়, তাহলে মোহরের অর্থ স্ত্রীর ওয়ারিস বা উত্তরাধীকারীদের কাছে দিতে হবে, তারা এর মালিক হবে। তারা যে হারে ওই নারীর অন্যান্য অর্থ-সম্পদের মালিক হয়, একই হারে মোহরের সম্পদেরও মালিক হবে।

ইসলামে বিয়ের সময় মোহর নির্ধারণ করা ওয়াজিব। মোহর নির্ধারণ না করলেও মোহরে মিসিল বা স্ত্রীর সমান সামাজিক মর্যাদার অন্য নারীদের স্বাভাবিক মোহর তাকে দেওয়া ওয়াজিব হয়ে যায়। বিয়ের মোহর পরিশোধ করা স্বামীর ওপর ফরজ। কোরআনে আল্লাহ বলেছেন,

وَ اٰتُوا النِّسَآءَ صَدُقٰتِهِنَّ نِحۡلَۃً فَاِنۡ طِبۡنَ لَکُمۡ عَنۡ شَیۡءٍ مِّنۡهُ نَفۡسًا فَکُلُوۡهُ هَنِیۡٓــًٔا مَّرِیۡٓــًٔا

আর তোমরা নারীদেরকে উপহার হিসেবে তাদের মোহর দিয়ে দাও, তারপর যদি তারা তোমাদের জন্য তা থেকে খুশি হয়ে কিছু ছাড় দেয়, তাহলে তোমরা তা সানন্দে তৃপ্তিসহকারে খেতে পার। (সুরা নিসা: ৪)

মোহর নারীর মূল্য নয় বরং একটি উপহার যা স্বামীর আগ্রহের প্রমাণ বহন করে। কোরআনের আয়াতেও উপহার বলে স্পষ্ট করা হয়েছে যে এটা নারীর মূল্য বা বিনিময় নয়। একইসাথে কোরআনে মোহর স্ত্রীকে দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে বোঝানো হয়েছে মোহরের মালিক হবে স্ত্রী, তার পরিবার বা অভিভাবকরা নয়। স্ত্রীর ইচ্ছে হলে মোহরে ছাড়ও দিতে পারে।

Related posts

জামায়াতে নামাজ পড়ার তাড়া, মসজিদের গ্লাসে ধাক্কা লেগে যুবকের মৃত্যু

Samar Khan

সুরা ফাজরের আয়াতগুলো থেকে যে শিক্ষা ও নির্দেশনা আমরা পাই

Asma Akter

আল্লাহ যার দোয়া ফিরিয়ে দেন না

Asma Akter

Leave a Comment