আন্তর্জাতিকসর্বশেষ

ভাইরাল কিশোর ১৩ বছর বয়সে বিয়ে করে

ভাইরাল কিশোর ১৩ বছর বয়সে বিয়ে করে

ভাইরাল কিশোর ১৩ বছর বয়সে বিয়ে করে

১৩ বছর বয়সে বিয়ে করে ভাইরাল হয়েছে পাকিস্তানের এক কিশোর। ছেলেটি তার পরিবারকে বিয়ের জন্য খুব চাপ দিয়েছিল। সেই কারণে বাধ্য হয়ে তার মা-বাবা তাকে বাগদান করিয়েছেন। বিয়ের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। এই নিয়ে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

পাকিস্তান থেকে একটি চমকপ্রদ ঘটনা প্রকাশিত হয়েছে, যেখানে একটি 13 বছরের ছেলে এবং 12 বছরের একটি মেয়ে বিয়ে করতে চলেছে। দুই নাবালকের বাগদানের ভিডিয়োটিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে, যা দেখে মানুষ বিস্ময় প্রকাশ করছে। এই নিয়ে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

সালাম পাকিস্তান হ্যান্ডেল দিয়ে ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে, যাতে দুই কিশোর ছেলে ও মেয়েকে দেখা যায়। ছেলেটি পাগড়ি পরা এবং মেয়েটিকে কনের সাজে দেখা যাচ্ছে। এই ভিডিয়োর সঙ্গে ক্যাপশনে লেখা আছে – একটি 13 বছর বয়সী দম্পতির শীঘ্রই বিয়ে হচ্ছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে, ভিডিওতে দেখা কিশোরটি তার পরিবারকে একটি আল্টিমেটাম জারি করেছিল, যাতে সে বলেছিল যে সে বিয়ে করলেই পড়াশোনা চালিয়ে যাবে। এরপর উভয় পরিবারই তাদের সন্তানদের বিয়েতে রাজি হয়ে ব্যাপক আড়ম্বরের সঙ্গে বিয়ের প্রস্তুতি নেয়।

এই বাগদান অনুষ্ঠানে উভয় সন্তানের মা গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় এটাকে সঠিক সিদ্ধান্ত বলেছেন। আশ্চর্যের বিষয় হল যে মেয়েটির মা, যিনি নিজেই 16 বছর বয়সে বিয়ে করেছিলেন, তিনি তার অভিজ্ঞতা উল্লেখ করেছেন এবং তার মেয়ের বাল্যবিবাহকে সঠিক বলে মনে করেছেন।একইভাবে, 25 বছর বয়সে বিয়ে করা সত্ত্বেও ছেলেটির মা তার ছেলের এত কম বয়সে বিয়ে করার ইচ্ছা সঠিক বলেন।
এই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব দ্রুত শেয়ার হচ্ছে। নেটিজেনরা এই বিয়ে নিয়ে পাকিস্তান ও পরিবারের কড়া সমালোচনা করছেন। একজন ইউজার লিখেছেন, ‘এটা খুব বেশি।’ আরেকজন তার কমেন্টে লিখেছেন, ‘এই দেশটা সত্যিই নষ্ট হয়ে গেছে ভাই, অন্তত পড়াশোনা শুরু করুন।’ তৃতীয়জন কমেন্টে লিখেছেন, ‘এই কাজের জন্য অভিভাবকদের ওপর ঘটনা হওয়া উচিত।
পাকিস্তানে বিবাহের সর্বনিম্ন বয়স পুরুষদের জন্য 18 বছর এবং মহিলাদের জন্য 16 বছর। যদিও সিন্ধু প্রদেশ 2013 সালে নারী ও পুরুষ উভয়ের জন্য বিয়ের ন্যূনতম বয়স 18-এ উন্নীত করে একটি আইন পাস করেছে, তবে দেশব্যাপী এই পরিবর্তন কার্যকর করা হয়নি। আন্তর্জাতিকভাবে, নারী ও পুরুষের বিয়ের সর্বনিম্ন বয়স 18 বছর। কিন্তু এই মামলাটি অনেক আইনি বিধিনিষেধ সত্ত্বেও বাল্যবিবাহের সমস্যাকে তুলে ধরেছে।

Related posts

বাজারে এল সস্তার ই-বাইক, 171 Km রেঞ্জে Splendor

Rubaiya Tasnim

যেভাবে থ্রেডস আইডি ডিলিট করবেন ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট ঠিক রেখে

Rubaiya Tasnim

লম্পট আজিজের ফাঁদে বহু নারীর সর্বনাশ

Megh Bristy

Leave a Comment