ইসলাম ধর্ম

তিন ব্যক্তির ওপর আল্লাহ তাআলা জান্নাত হারাম করেছেন

pickynews24

দাইয়ুস বলা হয় এমন ব্যক্তিকে যে নিজের পরিবারের নারীদের চরিত্রহীনতা, ব্যভিচারে বাধা দেয় না। আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর (রা.) বলেন, আল্লাহর রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন,

ثَلَاثَةٌ قَدْ حَرّمَ اللهُ عَلَيْهِمُ الْجَنّةَ: مُدْمِنُ الْخَمْرِ، وَالْعَاقّ، وَالدَّيُّوثُ، الّذِي يُقِرّ فِي أَهْلِهِ الْخَبَثَ.

তিন ব্যক্তির ওপর আল্লাহ তাআলা জান্নাত হারাম করেছেন। মদ্যপানে অভ্যস্ত ব্যক্তি, বাবা-মায়ের অবাধ্য সন্তান এবং দাইয়ুস অর্থাৎ এমন ব্যক্তি যে তার পরিবারের নারীদের পাপাচার অর্থাৎ ব্যভিচার ইত্যাদিকে সমর্থন করে। (মুসনাদে আহমদ: ৫৩৭২)

দাইয়ুসের শাস্তির ঘোষণা এসেছে বিভিন্ন হাদিসে। একটি হাদিসে রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন,
ثَلَاثٌ لَا يَدْخُلُونَ الْجَنّةَ، وَلَا يَنْظُرُ اللهُ إِلَيْهِمْ يَوْمَ الْقِيَامَةِ: الْعَاقّ بِوَالِدَيْهِ، وَالْمَرْأَةُ الْمُتَرَجِّلَةُ الْمُتَشَبِّهَةُ بِالرِّجَالِ، وَالدّيّوثُ.

তিন ব্যক্তি জান্নাতে প্রবেশ করবে না এবং কেয়ামতের দিন আল্লাহ তাআলা তাদের দিকে (রহমতের দৃষ্টিতে) তাকাবেন না; বাবা-মায়ের অবাধ্য সন্তান, পুরুষের সাদৃশ্য গ্রহণকারী নারী এবং দাইয়ুস। (মুসনাদে আহমাদ: ৬১৮০)

যে কোনো মানুষের বিরুদ্ধে এটা একটা গুরুতর অভিযোগ, যাতে তার পরিবারের নারীদের প্রতি অপবাদও অন্তর্ভুক্ত থাকে। তাই কাউকে দাইয়ুস বলা নাজায়েজ। এ থেকে বিরত থাকা আবশ্যক।

Related posts

জামায়াতে নামাজ পড়ার তাড়া, মসজিদের গ্লাসে ধাক্কা লেগে যুবকের মৃত্যু

Samar Khan

ইসলামে আত্মহত্যা মারাত্মক অপরাধ, বড় গোনাহ

Asma Akter

নামাজের সময়সূচি: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

Asma Akter

Leave a Comment